কানাডার বায়তুন নূর মসজিদে ‘ভয়েসেস ফর পিস’ অনুষ্ঠিত


কলিম আহমেদ, স্থানীয় নায়েব আমীর, ক্যালগারি, কানাডা

হযরত আমীরুল মু’মিনীন খলীফাতুল মসীহ্ আল্ খামেস (আই.), প্রতিনিয়ত বিশ্বকে শান্তির আহবান জানিয়ে যাচ্ছেন এবং আকাশে ঘনায়মান বিশ্বযুদ্ধের কালো মেঘ সম্পর্কে সতর্ক করে যাচ্ছেন এমন একটি সময়ে যখন বিগত কয়েক সপ্তাহ ধরে চলমান ইসরায়েল-হামাস সংঘাত হাজার হাজার প্রাণ কেড়ে নিয়েছে; বোধ-বুদ্ধি-বিবেকশূন্য হত্যাযজ্ঞ ও রক্তপাত, যার কড়াল গ্রাস থেকে নারী-শিশু-বৃদ্ধ কেউই রেহাই পাচ্ছে না। হুযূর (আই.) এর উক্ত দিকনির্দেশনার আলোকে আহমদীয়া মুসলিম জামা’ত ক্যালগারি, কানাডা গত ১৯ নভেম্বর, ২০২৩ তারিখে একটি সম্মেলনের আয়োজন করে। ‘ভয়েসেস ফর পিস’ শীর্ষক সম্মেলনটির প্রধান উদ্দেশ্য ছিল বিশ্বশক্তিগুলোর দ্বারা চলমান অবিচার সংঘটিত হওয়ার বিপরীতে গণসচেতনতা গড়ে তোলা এবং মানুষকে উদ্ভূত বৈশ্বিক-বিপর্যয়কর পরিস্থিতি সম্পর্কে জানানো।
অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ধর্মের জ্ঞানী-গুণী ব্যক্তিরা অংশগ্রহণ করেন। প্রত্যেক ধর্মের মূলবাণী যে শান্তি, সম্প্রীতি, সৌহার্দ্য, তারই প্রকাশ এই সম্মেলন।
অনুষ্ঠানটি ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে একাধারে সাধারণ জনগণ ও বুদ্ধিজীবী মহলে। যার ফলে, বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার অন্তত ৬০০ লোক সম্মেলনটিতে অংশগ্রহণ করে। অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে ছিলেন আ্যলবার্টার বিশিষ্ট রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব জনাব রিক ম্যাকেলভার, ক্যালগেরির মেয়র জ্যোতী গনডেক, এয়ারড্রির মেয়র পিটার ব্রাউন, পারমিত বোপারাই (এম.এল.এ), গুরিন্দার ব্রার (এম.এল.এ), চ্যান্টেল ডি ইয়ং (এম.এল.এ) এবং কাউন্সিলর রাজ ধালিওয়াল।
আলোচকেরা, ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাতের প্রেক্ষাপটে, গুরুত্বারোপ করেন বিভিন্ন ধর্মীয় গোষ্ঠীর ভিতর ঐক্য, আস্থা ও সংলাপের উপর।
উদ্বোধনী বক্তব্যে স্থানীয় জামাতের বহিঃসংযোগ-বিষয়ক সেক্রেটারি জনাব নাঈম বশির আলোকপাত করেন বর্তমান পরিবেশে শান্তি প্রতিষ্ঠা উদ্বুদ্ধকরণে আহমদীয়া মুসলিম জামা’তের পদক্ষেপসমূহের উপর এবং উক্ত অনুষ্ঠানের ন্যায় অনুষ্ঠানসমূহ, যা হাইফা, লন্ডন-সহ পৃথিবীর আরও বিভিন্ন শহরে অনুষ্ঠিত হয়েছে, সেসবের উল্লেখ করেন তিনি।
ক্যালগারির মেয়র জনাব জ্যোতি গোন্ডেক তার সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে শান্তি ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার উপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, এই পন্থা শুধুমাত্র ক্যালগারিতে নয়, বরং পুরো পৃথিবীতেই অনুসরণ করা উচিত।
ক্যালগারির বৃহত্তম ইহুদি কনগ্রেগেশন বেথ জেডেক-এর সিনিয়র র‍্যাবাই জনাব রাসেল জেইন, তার উপস্থাপনায় বলেন যে, পবিত্র ভূমিতে যুদ্ধের কারণে বিভিন্ন ধর্মীয় গোষ্ঠী কী পরিমাণ কষ্ট ও মর্মবেদনার ভিতর দিয়ে যাচ্ছে তা স্বীকার না করে শান্তির কথা বলা অর্থহীন।
হানান সোভি সাহেব ইসলামের দৃষ্টিভঙ্গি উপস্থাপন করেন। ইসলামিক আইনে বর্ণিত শান্তির শিক্ষা ও যুদ্ধের নিয়মাবলী এবং শর্তসমূহ তুলে ধরেন তিনি। তিনি বলেন, দীর্ঘস্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য ন্যায়বিচার এবং সাম্য প্রধানতম পূর্বশর্ত।
সমাপনী বক্তৃতায়, স্থানীয় আমীর জনাব মীর মজিদ আহমদ তারিক, সকল বক্তা এবং উপস্থিত শ্রোতাদের উদ্দেশে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠায় তাদের এই সরব সমর্থনের জন্যে।
এই অনুষ্ঠানে একটি প্রদর্শনীর ব্যবস্থাও ছিল। এতে বিভিন্ন ভাষায় পবিত্র কুরআনের অনুবাদ, জামাতী বইপত্র এবং পাথওয়ে টু পিস বিষয়ক বিভিন্ন ব্যানার এতে প্রদর্শিত হয়।
‘ভয়েস ফর পিস’ সম্মেলনটি মূলধারার ও জাতিগত বিভিন্ন মিডিয়া এবং টিভি চ্যানেলেরও দৃষ্টি আকর্ষণ করে ও শিরোনাম হিসেবে প্রচারিত হয়, যার মধ্যে রয়েছে CTV এবং গ্লোবাল টিভি। সম্মেলনটি অনলাইনেও সরাসরি সম্প্রচারিত হয়, যা আরও বৃহত্তর পরিসরের মানুষের কাছে শান্তি, সচেতনতা ও পারস্পরিক আস্থার বাণী পৌঁছে দিয়েছে।

আল্‌ হাকাম (https://www.alhakam.org/voices-for-peace-event-at-baitun-nur-mosque-calgary-canada/)