রচেস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী কর্তৃক ডেট্রয়েটের মাহমুদ মসজিদ পরিদর্শন


মুহম্মদ আহমদ, সেক্রেটারি তবলীগ, আহমদীয়া মুসলিম জামা’ত ডেট্রয়েট, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

জামা’তে আহমদীয়া ডেট্রয়েট, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র-এর আমন্ত্রণে রচেস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা জামা’তের মসজিদ পরিদর্শন করেন ৩০ নভেম্বর, ২০২৩ তারিখে। সন্ধ্যা ৬ থেকে ৮টা পর্যন্ত সেখানে তারা অবস্থান করেন এবং আতিথেয়তা গ্রহণ করেন।

অধ্যাপক ড. কিথ হুই, দশ জন শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নিয়ে মসজিদে মাহমুদ পরিদর্শন করেন। ছাত্র-ছাত্রীদের মসজিদ, গ্রন্থাগার এবং কমিউনিটি সেন্টার ঘুরিয়ে দেখানো হয়।

জামা’তের মোবাল্লেগ জনাব ফারান রাব্বানি আমন্ত্রিত অতিথিদের সাথে কথোপকথনের ভিতর দিয়ে তাদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর প্রদান করেন। অনুষ্ঠানটি শুরু হয় ছাত্র-ছাত্রী, অধ্যাপক কিথ হুই এবং উপস্থিত জামা’তি ব্যক্তিবর্গের নিজ নিজ পরিচয় উপস্থাপনের মধ্যদিয়ে। সংক্ষিপ্ত পরিচয়পর্বের পর সভাটি প্রশ্নেোত্তর পর্বের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়। অনেকগুলো প্রশ্ন উত্থাপিত এবং গঠনমূলক আলোচনা চলে দু’ঘণ্টা ব্যাপী।

একজন ছাত্র সুন্নি এবং আহমদী মুসলমানের মধ্যে পার্থক্য সম্বন্ধে জিজ্ঞাসা করেন। জবাবে ফারান সাহেব পার্থক্যগুলো বিস্তৃতভাবে তুলে ধরেন, সাথে সাথে প্রধান সাদৃশ্যের বিষয়গুলোও বর্ণনা করেন।

ফিলিস্তিন-ইসরায়েল যুদ্ধের প্রেক্ষাপটে যুদ্ধবিষয়ক ইসলামী দৃষ্টিভঙ্গি ও দিকনির্দেশনা আলোচিত হয় এবং যুদ্ধে নারী, শিশু, বৃদ্ধ, ধর্মতাত্ত্বিক ও পশুপাখি হত্যাকে এবং ফসল বিনষ্ট করাকে হযরত মহম্মদ (সা.) কীভাবে নিষিদ্ধ করেছেন তা উপস্থাপিত হয়।

নারী-শিক্ষা, নারীর অধিকার এবং লৈঙ্গিক পৃথকীকরণের অন্তর্নিহিত তাৎপর্য নিয়েও আলোচনা হয়।

ধর্ম ও সংস্কৃতির ভিতরকার পার্থক্যের বিষয়টিও আলোচনায় উঠে আসে।

ছাত্র-ছাত্রীরা তাদের শিক্ষককে সাথে নিয়ে মুসলমানদের জামা’তে নামাজ আদায় করার বিষয়টি মনোযোগের সাথে অবলোকন করেন।

আল্‌ হাকাম (https://www.alhakam.org/rochester-university-class-visits-mahmood-mosque-detroit/)